বর্তমানে রূপচর্চার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হচ্ছে ত্বক হতে হবে কোমল ও উজ্জ্বল। দূর থেকে দেখেই যেন বোঝা যায় ত্বক খুব কোমল। ত্বকের যত্নের পাশাপাশি অতিরিক্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল খাদ্যাভ্যাস। খেয়াল করলে দেখা যাবে, যাদের ত্বক খুব উজ্জ্বল, তাদের অধিকাংশের জীবনধারা বেশ পরিমিত।

খাওয়াদাওয়ার বিষয়ে বেশ সচেতন তারা। কারণ প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন, অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট না পেলে কখনও জেল্লাদার থাকে না ত্বক। আর সে সব আসে নানা ধরনের শাকসবজি থেকে।

ত্বকের যত্নে কেন বেশি শাকসবজির দিকে ঝুঁকছে গোটা বিশ্ব?
সারা বিশ্বেই এখন শাকসবজি খাওয়ার দিকে জোর দেওয়া হচ্ছে। শুধু শরীর ভাল রাখার জন্য নয়, রূপ ধরে রাখতেও। আসলে পেট কেমন থাকছে, তার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে রূপের। পেট ভাল থাকলে চুল ও ত্বকের সমস্যা কম হয়। আর শাকসবজি নিয়মিত খেলে সে দিকটা অনেকটাই নিশ্চিত করা সম্ভব হতে পারে। এছাড়াও শাকসবজিতে রয়েছে এমন কিছু খনিজ পদার্থ, যা বয়সজনিত সমস্যা দূরে রাখতে পারে। আর তাই ত্বকের উপর বয়সের ছাপও পড়ে দেরিতে।

 

কী কী পাওয়া যায় শাকসবজিতে, যা ত্বকের যত্ন নেয়?
ভিটামিন এ ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্য খুব জরুরি। তা থাকে বিভিন্ন সবজিতেই। আর এই ভিটামিন বার্ধক্যের সমস্যা কমায়। ত্বক ও চুলে বয়সের প্রভাব পড়ে দেরিতে। ভিটামিন সি এবং জিঙ্ক, এই দু’টি উপাদানও পর্যাপ্ত পরিমাণে মেলে শাকসবজিতে। তাতে চুল পড়া কমে। খুশকির সমস্যা কমে।

কিছু কিছু শাকে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ই আর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। তার প্রভাবে ত্বক উজ্জ্বল হয়। চুলেরও জেল্লা বাড়ে। নানা ধরনের শাকসবজি মিশিয়ে খেলে শরীর পায় প্রয়োজনীয় প্রোটিনও। যা কি না ঘুম নিয়ন্ত্রণ করে। প্রয়োজনীয় মাত্রায় ঘুম হলে ত্বকে নিজে থেকেই জেল্লা ফিরে আসে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা