সারাদেশে ২০২১ সালের উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল আজ রবিবার প্রকাশ করা হয়েছে। ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে ফল প্রকাশের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার পাশের হার ৯৫.২৬। এর মধ্যে ফলের সর্বোচ্চ সূচক জিপিএ–৫ পেয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১৪ লাখ ৩ হাজার ২৪৪ জন।

এর আগে, ২০২০ সালে সালের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় গড় পাসের হার ছিল শতভাগ। এর মধ্যে ফলের সর্বোচ্চ সূচক জিপিএ–৫ পেয়েছিলেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৮০৭ জন। 

ঢাকা শিক্ষাবোর্ডে এবার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় মোট পাসের হার ৯৬ দশমিক ২০ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৩ লাখ ১৫ হাজার ৯৫৭ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ২ লাখ ৯৮ হাজার ৯৭৯ জন।
রাজশাহী বোর্ডে এবার মোট পাসের হার ৯৭ দশমিক ২৯ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৫০ হাজার ৯১৮ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৪৮৯ জন।

কুমিল্লায় মোট পাসের হার ৯৭ দশমিক ৪৯ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১৭ হাজার ৪৬৬ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ১১ হাজার ৬৮০ জন।

যশোর বোর্ডে মোট পাসের হার ৯৮ দশমিক ১১ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৩১ হাজার ৫০০ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ২৫ হাজার ৭৪১ জন।

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে এবার মোট পাসের হার ৮৯ দশমিক ৩৯ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১ হাজার ২৫১ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৮৯ হাজার ৬২ জন।

বরিশাল বোর্ডে মোট পাসের হার ৯৫ দশমিক ৭৬ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৬৮ হাজার ৬২২ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬৩ হাজার ৯৬৪ জন।

সিলেট বোর্ডে মোট পাসের হার ৯৪ দশমিক ৮০ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৬৭ হাজার ৯৯৮ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬৩ হাজার ১৯৩ জন।

দিনাজপুর বোর্ডে মোট পাসের হার ৯২ দশমিক ৪৩ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১৫ হাজার ৯৮৬ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ৪ হাজার ৪৮৪ জন।

ময়মনসিংহ বোর্ডে মোট পাসের হার ৯৫ দশমিক ৭১ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ৭০ হাজার ৯৮২ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬৬ হাজার ২৫০ জন।

কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে এবার মোট পাসের হার ৯২ দশমিক ৮৫ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৯৭ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৮ জন।

মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডে মোট পাসের হার ৯৫ দশমিক ৪৯ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন ১ লাখ ১৩ হাজার ১৬৭ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১ লাখ ১ হাজার ৭৬৮ জন।