বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমু। অসংখ্য ব্যবসা সফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি।এই অভিনেত্রীর বস্তা বনদী মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। খুনী কেউ নয়, তার মাদকাসক্ত স্বামী সাখাওয়াত আলীম নোবেল।    

গতকাল সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দিনগত রাতে তার স্বামীকে আটক করা হয়।এসময় একটি গাড়িও জব্দ করা হয়।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল রাতে তাকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ রাতভর জেরার পরে দায় স্বীকার করে নোবেল পুলিশ সূত্রে তথ্য জানা গেছে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত আলামত বস্তাবন্দি করে লাশ ফেলে দেয়ার ঘটনায় ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়েছে

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় শিমুর ভাই বাদী হয়ে একটি মামলাও করেছেন শিমুর বড় ভাই বলেন, শিমু তার স্বামীর মাঝে প্রায়ই ঝগড়া হতো সেই ঝগড়ার সূত্র ধরেই হয়তো তাকে হত্যা করা হয়েছে

অভিনেত্রী শিমুর বোন ফাতেমা জানান, গত রোববার সকাল ১০টায় বাসা থেকে বের হন শিমু সন্ধ্যা ৭টায় শিমুর এক বন্ধু শিমুকে ফোনে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানায় পরে রাত ১১টায় কলাবাগান থানায় যায় জিডি করা হয় সন্ধ্যায় মিটফোর্ড হাসপাতালে লাশ শনাক্ত করেন শিমুর ভাই শহিদুল ইসলাম খোকন এরপর শিমুর স্বামী নোবেলকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন শহিদুল ইসলাম খোকন ওই মামলা নোবেলের বন্ধু ফরহাদকেও আসামি করা হয়েছে

প্রসঙ্গত, সোমবার সকাল ১০টার দিকে কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের কাছে অভিনেত্রী শিমুর লাশ উদ্ধার করে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ