চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ খানদীঘি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যলয়ের নবনির্বাচিত পরিচালনা কমিটির সাথে এলাকাবাসীর এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার(৮ জানুয়ারি) সকালে বিদ্যালয় মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

প্রধান বক্তা  মো. শাখাওয়াত হোসেন শিবলী বলেন, খানদীঘি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও পূর্ব সাতবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আমার প্রয়াত বাবা আবদুল ওয়াহেদ মাস্টার এলাকার শিক্ষা প্রসারে গড়েছিলেন। আজ এলাকাবাসীর সহযোগিতায় স্কুল দুটি পুরো এলাকাকে আলোকিত করেছে। সকল ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় স্কুল দুটি চন্দনাইশের শ্রেষ্ঠ স্কুলে রুপান্তর করব।

সভায় প্রধান অতিথি আফনান ইসলাম বলেন, নিজ নিজ এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সকলকে এগিয়ে আসা উচিত। এই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত আবদুল ওয়াহেদ মাস্টার ছিলেন চন্দনাইশের শিক্ষা প্রসারের অন্যতম অগ্রদূত।" এ সময় তিনি বিদ্যালয়ের আজীবন দাতা সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন এবং এই স্কুলের উন্নয়নে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখার প্রতিশ্রুতি দেন। তিনি স্কুলের মানোন্নয়নে এলাকাবাসীর ভূমিকার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন৷

স্কুলের নির্মিতব্য নামাজ ঘরের দ্রুত কাজ সম্পন্ন করতে প্রতিষ্ঠাতার জৈষ্ঠ্য সন্তান মো. সাজ্জাদ হোসেন ১ লক্ষ টাকা ও প্রতিষ্ঠাতার ভাগিনা অবসরপ্রাপ্ত কাস্টমস কর্মকর্তা আলহাজ্ব আবদুল ওয়াদুদ ৫৯ হাজার টাকা অনুদানের ঘোষণা দেন।

 নবনির্বাচিত সদস্য মো.নাজিম উদ্দীনের সভাপতিত্বে তরুণ শিল্পোদ্যোক্তা ও আসহাব-সিরাজ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আফনান ইসলামসহ  অনষ্ঠানে আরও  মো. সাজ্জাদ হোসেন, মো. শাখাওয়াত হোসেন শিবলী, মিল্টন বিকাশ দাশ, মো.জাহাঙ্গীর আলম, মাওলানা কামাল উদ্দিন, আলহাজ্ব সরাফত আলী সওদাগর, আমিনুর রহমান, নুরুল আমিন, আব্দুর রহিম, তোফাজ্জল হোসেন, আব্দুস সবুর, শাহাবুদ্দিন রাসেল ও সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।