শশুরবাড়িতে ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় এক প্রবাসীর স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে স্বজনরা। চট্টগ্রামের বায়েজিদ থানার অক্সিজেন কাঁচা বাজারের পাশে পাঠানপাড়া এলাকায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে এই গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করা হয়। তার নাম শায়লা শারমিন প্রকাশ সাবরিনা (২৭)। শশুরবাড়ির লোকজনের দাবি, হতাশা থেকে আত্মহত্যা করেন ওই নারী। তবে পুলিশ বলছে তদন্তের পর বলা যাবে এটা আত্মহত্যা নাকি অন্যকিছু।

রোববার (১১ জুলাই) রাত সাড়ে টার দিকে নিজ শ্বশুড়বাড়িতে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয় স্বজনরা।

বায়েজিদ থানার অক্সিজেন কাঁচাবাজারের পাশে পাঠানপাড়া এলাকার চৌধুরী নিবাস ভবনের ৪র্থ তলায় শশুরবাড়িতে থাকতেন সাবরিনা । তার স্বামী শোয়েবুর রহমান পলাশ ইউরোপের একটি  দেশে দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, রোববার রাতে শশুরবাড়িতে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন সাবরিনা। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের বাবা সুজাউদ্দৌলা ভুঁইয়া জানান, শারমিন দীর্ঘদিন থেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। তবে কেন সে আত্মহত্যা করলো বুঝতে পারছি না। এ ব্যাপারে তিনি বায়েজিদ থানায় একটি ইউডি মামলা করেছেন তিনি।

বায়েজিদ থানার এসআই শাহ আলম সুমন প্রবাসী টেলিভিশনকে জানান, প্রবাসী সুজনের স্ত্রী সাবরিনার মৃত্যু কি আত্মহত্যাজনিত নাকি অন্য কিছু তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।