করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির এ সময়ে প্রবাসীদের পাশে থাকতে রেমিট্যান্সের ওপর বিশেষ প্রণোদনা দিচ্ছে রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংক। বৈধপথে দেশে রেমিট্যান্স পাঠালে নগদ ২ শতাংশ প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। তবে অগ্রণী ব্যাংকে রেমিট্যান্স পাঠালে আরও এক শতাংশ বেশি প্রণোদনা পাওয়া যাচ্ছে। অর্থাৎ এ ব্যাংকে রেমিট্যান্স পাঠালে মিলছে নগদ ৩ শতাংশ প্রণোদনা।

এ প্রসঙ্গে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ শামস-উল ইসলাম  বলেন, ঈদে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠাতে আরও বেশি উৎসাহী করতে সরকারের প্রণোদনার পাশাপাশি অগ্রণী ব্যাংক রেমিট্যান্সের ওপর এক শতাংশ বেশি প্রণোদনা দিচ্ছে। অর্থাৎ কোনও প্রবাসী অগ্রণী ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে বা হিসাবে রেমিট্যান্স পাঠালে সরকারের ঘোষিত ২ শতাংশের প্রণোদনার সঙ্গে ব্যাংক থেকে আরও এক শতাংশ প্রণোদনা দেওয়া হবে। এর আগে গতবারও প্রবাসীদের এ অফার দেওয়া হয়েছিল। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত রেমিট্যান্সের এ অফার চলবে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, চলতি জুন মাসে ২৮ দিনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১৭৫ কোটি ২০ লাখ মার্কিন ডলার মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন। আর চলতি অর্থবছরে (২৮ জুন পর্যন্ত) রেমিট্যান্স এসেছে ২ হাজার ৪৫৮ কোটি ৯০ লাখ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় দুই লাখ ৯ হাজার কোটি টাকার বেশি)। এর আগে কোনও অর্থবছরে এত পরিমাণ রেমিট্যান্স আসেনি বাংলাদেশে।

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের ওপর ভর করে রিজার্ভ ৪৬ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে। গত ২৯ জুন বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৬ দশমিক শূন্য ৮ বিলিয়ন ডলার বা প্রায় চার হাজার ৬০৮ কোটি ডলার; বাংলা‌দে‌শি মুদ্রায় যার প‌রিমাণ তিন লাখ ৯১ হাজার ৬৯৭ কো‌টি টাকা (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে)।